অনলাইন ডেস্ক : ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেটে রাজস্ব আদায় পরিকল্পনা বাস্তবসম্মত নয়, ব্যাংকি খাতের দূরবস্থা নিয়ে কিছু বলা হয়নি, নতুন কর্মসংস্থান তৈরির কথা বলা হলেও কীভাবে, কোন খাতে, কোথা থেকে করা হবে তা সুনির্দিষ্টভাবে বলা হয়নি মনে করে বেসরকারি সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) ।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) বিকেলে সিপিডি কার্যালয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সংস্থাটির সম্মাননীয় ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এই বাজেটে নতুন চিন্তা বা ধারণা নেই; আগের বাজেটগুলোর ধারাবাহিকতা রক্ষা করা হয়েছে। নির্বাচনী ইশতেহারের অনেক বিষয়ই বাজেটে সুনির্দিষ্টভাবে আসেনি।অর্থমন্ত্রী চেষ্টা করেছেন, কিন্তু বাজেট পুরোপুরি বাস্তবতার নিরিখে হয়নি।

ড. দেবপ্রিয় বলেন, উপস্থাপনায় নতুনত্ব প্রস্তাবনার ভেতরে দেখা গেছে কি না, সেটি দেখার বিষয়। রাজস্ব কাঠামো প্রসঙ্গে যে বক্তব্যগুলো ছিল দুঃখের সাথে বলতে হয় সে জিনিসটি প্রতিফলিত হয়েছে বলে আমরা দেখতে পাচ্ছি না। অর্থাৎ অর্থমন্ত্রী বলেছেন, তিনি বাস্তবসম্মত একটি বাজেট তৈরি করতে চেয়েছেন। উনি চেষ্টা করেছেন। এখনো সম্পূর্ণ বাস্তবতার প্রতিফলন দেখা যায়নি।

তিনি বলেন, ব্যাংকের সবচেয়ে বেশি সমস্যার মধ্যে আছে অনাদায়ী ঋণ ও তারুল্য সংকট।

ড. দেবপ্রিয় বলেন, বাস্তবতার সঙ্গে মিলিয়ে দেখছি এবারে বাজেটে যে ঘাটতি অর্থায়নের কথা বলা হচ্ছে, সেজন্য ৪৭ হাজার কোটি টাকা ব্যাংক থেকে নেওয়া হবে। ব্যাংক এ টাকা কোথা থেকে দেবে। যদি দেয়ও তাহলে ব্যক্তি বিনিয়োগকারীদের বাকি টাকা কোথায় থেকে নিয়ে আসবেন।

তিনি বলেন, আশা আকাঙ্ক্ষার কথা বলেছেন, কিন্তু তা পূরণ করার জন্য সে রকমভাবে কর্মপরিকল্পনা সুনির্দিষ্টভাবে ইশতেহারের আলোকে দিতে পারেননি।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here